Breaking News
Home / খেলাধুলা / হারানো ফর্ম ফিরে পাবেন সৌম্য?

হারানো ফর্ম ফিরে পাবেন সৌম্য?

বাংলাদেশ জাতীয় দলে সৌম্য সরকারের শুরুটা হয়েছিল স্বপ্নের মতো। অল্প ক’দিনেই হয়ে উঠেছিলেন দলের তারকাদের একজন, ভরসার পাত্র। তবে হঠাৎ করেই ছন্দপতন, যে ছন্ন গত ৩-৪ বছর ধরেই শত চেষ্টা করেও খুঁজে পাচ্ছেন না সৌম্য।

গেল অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড সিরিজে ব্যাট হাতে চরম ব্যর্থ ছিলেন সৌম্য। অথচ এর আগের সিরিজে জিম্বাবুয়ে সফরে হয়েছিল সিরিজ সেরা। ধারাবাহিকতার অভাবে ভোগা সৌম্য তাই বিশ্বকাপের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে ব্যক্তিগত উদ্যোগে নিয়মিত অনুশীলনের মধ্যে ছিলেন।

এ সময় ব্যাটিং নিয়ে কাজ ছাড়াও বোলিং নিয়েও টুকটাক কাজ করেছেন অফ-ফর্মের মধ্যে দিয়ে যাওয়া এই ব্যাটিং-অলরাউন্ডার।

সৌম্য সরকার, জন্ম: ২৫ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৩, রোল: টপ অর্ডার ব্যাটার, ব্যাটিং স্টাইল: বাঁহাতি, বোলিং স্টাইল: ডানহাতি মিডিয়াম পেসার, টি-টোয়েন্টি অভিষেক: এপ্রিল ২৪, ২০১৫ বনাম পাকিস্তান

এবার প্রস্তুতিটা ভালো হয়েছে বলেই ভালো কিছুর প্রত্যাশা সৌম্য। বিশ্বকাপগামী বিমানে ওঠার আগে তিনি বলেছিলেন, ‘এতদিন অনুশীলন করছিলাম। আশা করি প্রস্তুতি ভালো হয়েছে। এখানে যতটুক হয়েছে, তাতে ভালো কিছুর আশা নিয়েই যাব (বিশ্বকাপে)।’

ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের মতো দলকে কিছুদিন আগে সিরিজ হারিয়েছে বাংলাদেশ। যদিও হোম গ্রাউন্ডের সুবিধা নিয়ে, স্পিনিং উইকেটে। তবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট মূলত হয় স্পোর্টিং উইকেটে। সৌম্য সেটা জানেন।

তবে তার আশা, দল জয়ের ধারায় আছে বলে বিশ্বকাপে স্পোর্টিং উইকেটে ক্রিকেটারদের মানিয়ে নিতে কষ্ট হবে না বলে জানালেন তিনি, ‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট স্পোর্টিং উইকেটে হয়। আশা করি সবাই ওখানে মানিয়ে নিতে পারবে। আমরা জয়ের ধারায় আছি। একটা আত্মবিশ্বাস আছে।’

নিউজিল্যান্ড সিরিজের পর দীর্ঘ একটা সময় ছুটি পায় বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। বায়ো বাবলের ক্লান্তি দূর করতে অনেকে সেই ছুটি কাটিয়েছেন আরাম-আয়েশে। তবে অফ-ফর্মে থাকা সৌম্য মাঠে ছিলেন নিয়মিত। এসময় স্কিল নিয়ে যেমন কাজ করেছেন, তেমনি স্পোর্টিং উইকেটে মানিয়ে নেয়ার প্রস্তুতিটা সেরেছেন তিনি,

‘স্কিল নিয়ে কিছু কাজ করা তো হয়েছেই। ব্যালেন্স করা, উইকেটে মানিয়ে নেয়া নিয়ে কাজ করেছি। আমরা গত যে দুই সিরিজে খেলেছি সেখানে উইকেট অনেক কঠিন ছিল। স্পোর্টিং উইকেটে খেলার জন্য আবার নিজেকে প্রস্তুত করতে হচ্ছে।’

এদিকে, বিশ্বকাপে সুযোগ পেলে প্রতিটি দলকেই সমান গুরুত্ব দিয়ে এবার মাঠে নামবেন বলে জানিয়েছেন সৌম্য, ‘প্রিয় প্রতিপক্ষ বলে কেউ নেই। সবার সাথেই ভালো করতে হবে। আলাদা কোনো কিছু নেই। মাঠে সব প্রতিপক্ষই সমান।

১০ নম্বর দলের বিপক্ষে যে মনোযোগ নিয়ে খেলা উচিৎ। এক নম্বর দলের বিপক্ষেও একই মনোযোগ নিয়ে খেলা উচিৎ। সবাইকে সমান চোখে দেখলে ভালো হয়। সব দল সমান। আলাদা কিছু না ভেবে নিজের সেরাটা দিতে হবে।’

Check Also

সুপার টুয়েলভ খেলতে দুবাইয়ে টাইগাররা

পাঁচ, ছয়, এক, সাত, শূন্য, আট, শূন্য। বাংলাদেশের বিপক্ষে পাপুয়া নিউগিনির (পিএনজি) প্রথম সাত জন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *