Home / খেলাধুলা / কোটি ভক্তকে কাঁদিয়ে অবশেষে বিদায় বলেই দিলেন মরগ্যান

কোটি ভক্তকে কাঁদিয়ে অবশেষে বিদায় বলেই দিলেন মরগ্যান

আভাসটা দিয়েছিলেন আগেই। এবার এলো আনুষ্ঠানিক বার্তা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে ফেললেন ইংল্যান্ডের সাদা বলের অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান। ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপজয়ী এ অধিনায়কের অবসরের তথ্য মঙ্গলবার (২৮ জুন) নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)।

এর আগে ব্রিটিশ গণমাধ্যমের বরাতে জানা গিয়েছিল, যে কোনো অবসর নিতে পারেন মরগ্যান। ইংলিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছিল, অবসরের চিন্তাভাবনা করছেন সাদা বলের ক্রিকেটে ইংল্যান্ডকে বদলে দেয়া এ অধিনায়ক। এমনও হতে পারে, এ সপ্তাহেই আসতে পারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। অবশেষে সেই গুঞ্জনই সত্যি হলো।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের প্রকাশিত এক বিবৃতিতে অবসরের ঘোষণা দিয়ে মরগ্যান বলেন, সুচিন্তিত বিবেচনার পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিচ্ছি। যদিও আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে আনন্দদায়ক এবং ফলপ্রসূ অধ্যায়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়াটা সহজ ছিল না। তবে আমি বিশ্বাস করি, সরে দাঁড়ানোর এটাই উপযুক্ত সময়।

নিজে এবং দলের জন্য এটাই সবচেয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত। এছাড়া ক্যারিয়ারে পাশে থেকে সমর্থন দেওয়ার জন্য পরিবার, সতীর্থ, কোচিং স্টাফ এবং সমর্থকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান মরগ্যান। তিনি বলেন, সবার সমর্থন এবং অনুপ্রেরণা ছাড়া এ জার্নি সম্ভব হতো না।

কিছুদিন আগেই নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে যেখানে ইংল্যান্ড রেকর্ড ভাঙা-গড়ায় ব্যস্ত, সেই সিরিজেই এক রেকর্ড গড়েন ইংল্যান্ডের সদ্য সাবেক এ অধিনায়ক। তৃতীয় ম্যাচে ইনজুরির কারণে না খেললেও প্রথম দুই ম্যাচে শূন্য রানে আউট হন মরগ্যান।

তাতেই ওয়ানডেতে জয়ী দলের প্রথম অধিনায়ক হিসেবে শূন্য রান নিয়ে সিরিজ শেষ করে রেকর্ড গড়েন তিনি। এমন বাজে ফর্মের কারণেই শেষ পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বলতে যাচ্ছেন বলে খবর চাউর হয়।

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে সিরিজের আগে স্কাই স্পোর্টসের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে মরগ্যান বলেছিলেন, ‘যখন আমার মনে হবে যে আমি সেরাটা দিতে পারছি না, দলে অবদান রাখতে পারছি না, তখনই আমি (ক্যারিয়ার) শেষ করব।’

ইংল্যান্ড প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপের স্বাদ পায় মরগ্যানের অধিনায়কত্বেই। মরগ্যানকে নিয়ে এক বার্তায় ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড বলছে, বিশ্বকাপ জেতা ছাড়াও ওয়ানডে ক্রিকেটে মরগ্যানের নেতৃত্বে আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থানে উঠে আসে ইংল্যান্ড। এছাড়া অসংখ্য সিরিজ জেতার গৌরবের স্বাক্ষী হয় দেশের ক্রিকেট।

২০০৯ সালে আয়ারল্যান্ড থেকে জাতীয়তা বদলে ইংল্যান্ডের হয়ে খেলা শুরু করেছিলেন মরগ্যান। পরবর্তী সময়ে সাদা বলের দুই ফরম্যাটেই দেশটির অধিনায়কত্ব করেছেন তিনি। ২২৫ ওয়ানডেতে ১৩ শতকে প্রায় ৭ হাজার রান এবং ১১৫ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে প্রায় আড়াই হাজার রান করে ক্রিকেটকে বিদায় জানান ৩৫ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

এছাড়া ২০১৫ সালে অ্যালিস্টার কুকের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার পর ইংল্যান্ডকে ১২৬ ওডিআই এবং ৭২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছেন মরগ্যান। তার নেতৃত্বেই ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ফাইনালে উঠে দল। এরপর ২০১৯ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপে শিরোপা জয়।

এদিকে, জাতীয় দল থেকে অবসর নিলেও ঘরোয়া লিগে খেলা চালিয়ে যাবেন এ ক্রিকেটার। এছাড়া আসন্ন দ্য হান্ড্রেড টুর্নামেন্টেও লন্ডন স্পিরিটের নেতৃত্ব সামলাবেন মরগ্যান। এছাড়া খেলাধুলার পাশাপাশি স্কাই স্পোর্টসের ধারাভাষ্য টিমেও যুক্ত হবেন তিনি।

Check Also

কেরানি থেকে আম্পায়ার হওয়া রুদি কোয়ের্তজেন আর নেই

দক্ষিণ আফ্রিকার খ্যাতিমান আম্পয়ার রুদি কোয়ের্তজেন আর নেই। মঙ্গলবার (০৯ আগস্ট) তিনি এক মর্মান্তিক সড়ক …

Leave a Reply

Your email address will not be published.