Home / খেলাধুলা / জেনেনিন যে কারণে বিশ্বকাপ জিততে পারে আর্জেন্টিনা

জেনেনিন যে কারণে বিশ্বকাপ জিততে পারে আর্জেন্টিনা

আগামী নভেম্বরে কাতারে বসতে যাচ্ছে ক্রীড়া ‍দুনিয়ার সবচেয়ে জাঁকজমকপূর্ণ ইভেন্ট ফিফা বিশ্বকাপ। ২২তম এই আসরে হট ফেবারিটের তালিকায় আছে লাতিন পরাশক্তি আর্জেন্টিনা। দলপতি লিওনেল মেসির সম্ভাব্য শেষ বিশ্বকাপ হওয়ায় সমর্থকরাও আশায় আছেন,

শেষ আসরে খেলতে নেমে বিশ্বমঞ্চের শিরোপা খরা কাটাতে পারবেন ফুটবল জাদুকর। আলবিসেলেস্তে সমর্থকদের এমন আশার পালে হাওয়া দিচ্ছে কোপা আমেরিকা এবং ফিনালিসিমার শিরোপা জয়।

কাতারে হট ফেবারিটের তালিকায় আছে ব্রাজিল এবং ফ্রান্সের মতো দলগুলোও। তবে সবাইকে ছাড়িয়ে কোন দিক থেকে এগিয়ে আর্জেন্টিনা? কেনইবা আশা দেখছেন সমর্থকরা? তেমন কিছু কারণই থাকল এবারের প্রতিবেদনে। চলুন জেনে নেওয়া যাক।

অপ্রতিরোধ্য আর্জেন্টিনা
২০১৯ সালে সবশেষ হারের স্বাদ পায় আর্জেন্টিনা। এরপর থেকে টানা ৩৩ ম্যাচে অপ্রতিরোধ্য লিওনেল মেসির দল। ২৮ বছরের শিরোপা খরা গুছিয়ে গেল বছর কোপা আমেরিকার শিরোপা জিতেছে দলটি।

এছাড়া কদিন আগে মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই লা ফিনালিসিমায় ইতালিকে ভূপাতিত করেছে আলবিসেলেস্তেরা। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়েও সেরা তিনে নিজেদের জায়গা ধরে রেখেছে লিওনেল স্ক্যালোনির শিষ্যরা। বিশ্বকাপের আগে এমন পরিসংখ্যান নিশ্চয়ই বাড়তি প্রেরণা দেবে দলকে।

মেসি-আশার বাতিঘর
‘ক্লাবের জন্য যতটা মনপ্রাণ উজাড় করে খেলেন মেসি, জাতীয় দলে তেমনটা দেখা যায় না’ বলে অতীতে কম কথা শোনা যায়নি। এছাড়া দেশের হয়ে কোনো ট্রফি জিততে না পারার অপবাদ তো ছিলোই।

তবে গেল কোপা আমেরিকার শিরোপা জয়ে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে সমালোচকদের যোগ্য জবাব দিয়ে প্রশ্নবাণ থামিয়ে দিয়েছেন ফুটবল জাদুকর। এখন অপেক্ষা শুধু বিশ্বকাপ শিরোপার। সাতবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী আর্জেন্টাইন সুপারস্টারের ক্যারিয়ারের অপ্রাপ্তির তালিকায় আছে কেবল ফিফা বিশ্বকাপ।

২০১৪ সালে স্বপ্নের অতি কাছে গেলেও, শেষ পর্যন্ত ছোঁয়া হয়নি ৬.১৭৫ কেজি ওজনের সোনার ট্রফিটি। এরপর রাশিয়া বিশ্বকাপে নিজেদের ঠিকমতো মেলে ধরতে না পারলেও, কাতার বিশ্বকাপে আলবিসেলেস্তেরা স্বপ্ন দেখছেন মেসির হাত ধরে তৃতীয় বিশ্বকাপ জয়ের।

আর্জেন্টিনার তরুণ তারকা ফুটবলার হুলিয়ান আলভারেজও নিজ দেশের সংবাদমাধ্যম এল পায়েসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘সকল আর্জেন্টাইনদের জন্য এটা (বিশ্বকাপ) অর্জন করা যায়, তাহলে তো খুব ভালো হয়।

কারণ আমি মনে করি যে বিশ্বব্যাপী ফুটবলের কাছে মেসির এটা পাওনা। ফুটবল মেসির কাছে তার সবকিছুর জন্য ঋণী। আমি জানি না আমরা প্রার্থী কিনা কিন্তু আমরা এখানে যে কারও সঙ্গেই লড়াই করতে এসেছি।’

লিওনেল স্ক্যালোনি-এক সুতোয় গেঁথেছেন যিনি
বছর পাঁচেক আগেও আর্জেন্টিনা ছিল আঁধারের কানাগলিতে ঘুরপাক খেতে থাকা এক দলের নাম। সেই দলটাতেই এখন তীব্র আলোর ঝলমলানি। ৩৩ ম্যাচ ধরে অপরাজিত, শেষ এক বছরে জিতেছে কোপা আমেরিকা আর ফিনালিসিমা শিরোপা।

দলের এমন পারফরম্যান্সে সবচেয়ে বড় কারণ খেলোয়াড়দের দলের প্রতি নিবেদন আর ঐক্য। যার বড় কৃতিত্ব দলকে এক সুতোয় গাঁথা কোচ লিওনেল স্ক্যালোনির। এবার তার নেতৃত্বেই ৩৬ বছরের বিশ্বকাপ শিরোপার অপেক্ষায় ইতি টানতে চান সমর্থকরা।

এমিলিয়ানো মার্টিনেজ-চীনের মহাপ্রাচীর
গোলপোস্টে আজেন্টাইনদের জন্য বর্তমান সময়ের চীনের মহাপ্রাচীর এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। তার উপস্থিতিতে রক্ষণভাগে স্বস্তি দেয় লিওনেল মেসিকে। ম্যাচে যতই বাকবিতণ্ডায় হোক না কেন ঠান্ডা মাথায় রক্ষণের কাজটা সারেন মার্টিনেজ। এছাড়া ২০২১ সালের জুনে দলে ভেড়ার পর এখনো পর্যন্ত কোনো ম্যাচ হারেনি আর্জেন্টিনা। এবারের বিশ্বকাপে টার্নিং পয়েন্ট হতে পারেন এই মার্টিনেজ।

Check Also

কেরানি থেকে আম্পায়ার হওয়া রুদি কোয়ের্তজেন আর নেই

দক্ষিণ আফ্রিকার খ্যাতিমান আম্পয়ার রুদি কোয়ের্তজেন আর নেই। মঙ্গলবার (০৯ আগস্ট) তিনি এক মর্মান্তিক সড়ক …

Leave a Reply

Your email address will not be published.