Home / খেলাধুলা / যে কারণে চেয়ারে জায়গা হয়নি সাফজয়ী কোচ-অধিনায়কের

যে কারণে চেয়ারে জায়গা হয়নি সাফজয়ী কোচ-অধিনায়কের

নেপালের কাঠমান্ডু থেকে ঢাকা আসতে বেশি সময় লাগেনি বাংলাদেশের নারী দলের। বিমানবন্দরে নেমেই ছাদখোলা বাসে অভিনন্দনে সিক্ত হতে হতে বাফুফের ভবনে পৌঁছায় সাবিনা-কৃষ্ণারা। সেখানে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

তবে সেই সংবাদ সম্মেলনে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল, বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিন এবং বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি সালাম মুর্শেদী থাকায় চেয়ার ছেড়ে দিতে হয় নারী জাতীয় ফুটবল দলের কোচ গোলাম রব্বানি ছোটনকে।

তার আগে এই ছোটনকে চেয়ার ছেড়ে দেন নারী দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। সংবাদ সম্মেলনে সবার মাঝে বসবেন প্রধান কোচ, পাশে অধিনায়ক। যেকোনো পেশাদার সংবাদ সম্মেলনে এমনটিই তো দেখা যায়। কিন্তু বাংলাদেশের ক্ষেত্রে যেন তা উল্টো। মঞ্চ দখলে ছিল বাফুফের সভাপতি, সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সহ-সভাপতিদের।

এদিকে এমন উৎসবের দিনেও বাফুফের আয়োজনে ছিল কমতি। নিজেদের আঙিনায় বাড়তি কোনো আলোর ব্যবস্থা পর্যন্ত করা হয়নি। গত দুই দিন দেশের গণমাধ্যমের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু ছিল সাফ জয়ী নারী দল। কিন্তু ছিল না কোনো বাড়তি ব্যবস্থা।

সালাহউদ্দিন ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলের বক্তৃতার পর সাংবাদিকরা যখন বাংলাদেশ নারী দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন ও দলের কোচ গোলাম রব্বানি ছোটনকে প্রশ্ন করে, তখন তারা সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়েই দিয়েছেন।

তবে সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে অবশ্য বসার সুযোগ মিলেছিল সাবিনাদের। কিন্তু পরে উঠে যেতে হয়। আর এতে বেজায় খেপেছেন সমর্থকরা। ইতিমধ্যে বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করেন অনেকে।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১টা ৪৫ মিনিটে ঢাকা পৌঁছায় বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। সেখানে তাদের অভ্যার্থনা জানান যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী। এরপর ছাদখোলা বাসে করে প্রায় ৫ ঘণ্টার যাত্রা শেষে আসেন বাফুফেতে। সেখানে তাদের বরণ করে নেন বাফুফে সভাপতি সালাহউদ্দিন।

Check Also

দেশে পা রেখেই গ্রেপ্তার লামিচানে

গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির প্রায় এক মাস পর আজ দেশে ফিরেছেন নেপালের ক্রিকেটার সন্দীপ লামিচানে। কাঠমান্ডুর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.